Archive for the ‘সফটওয়্যার’ Category


ছবি তোলার পর সেটিকে আরও সুন্দরভাবে ফুটিয়ে তুলতে হাল আমলে এফেক্ট যোগ করা হচ্ছে হামেশ্ই। ছবিতে নিত্য নতুন ইফেক্ট যুক্ত করার প্রবণতা বাড়ছে। তবে এ জন্য কম্পিউটার বা সফটওয়্যারে এক্সপার্ট হওয়ার প্রয়োজন নেই। একটি অ্যাপ ব্যবহার করেই এ কাজটি করা যাবে খুব সহজেই।

ছবিতে ইফেক্ট যোগ করতে অ্যান্ড্রয়েডের রয়েছে নানা অ্যাপস। এত সব অ্যাপসের মধ্যে ভাল একটি অ্যাপস খুঁজে পাওয়া একটু কঠিন বৈকি। অনেকগুলোর মধ্যে থেকে বাছাই করে ব্যবহার করা যেতে পারে জেনরেট্রো (XnRetro)। ছবিতে ইফেক্ট যুক্ত করার জন্য এটি চমৎকার একটি অ্যাপ। এতে রয়েছে দারুণ এবং সুন্দর অনেকগুলো ইফেক্ট। যে ইফেক্টগুলো ব্যবহার করলে ছবি আগের থেকে আকর্ষণীয় হবে।

app-xnretro-512

অ্যাপটির ফিচারগুলো হলো- (বিস্তারিত…)

Advertisements

দুর্ঘটনার কোনো সময় অসময় নেই। তাই সব সময় প্রস্তুত থাকা ভালো। এ ক্ষেত্রে হাতের স্মার্টফোনটিও কাজে আসতে পারে। যদি প্রাথমিক চিকিৎসার জন্য ফার্স্ট এইড অ্যাপটি নামানো থাকে।

দুর্ঘটনার পরপর আহত ব্যক্তিকে নিকটের হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার আগে প্রয়োজন প্রাথমিক চিকিৎসার। ফার্স্ট এইড অ্যাপটি সে সময় জানিয়ে দেবে রোগীর জন্য কি ধরনের প্রাথমিক চিকিৎসা প্রয়োজন।

চিকিৎসকের সঙ্গে যোগাযোগ করার আগে অ্যাপটির ব্যবহার বেশ উপকারে আসবে। দুর্ঘটনা ছাড়াও অন্যান্য রোগের সমন্ধে প্রাথমিকভাবে জানতেও সাহায্য করবে এটি। দারুণ কাজের এ অ্যাপটির সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দিতে এ প্রতিবেদন।

First-aid-android-logo_techshohor

বিশ্বব্যাপী অ্যাপটি বেশ জনপ্রিয়তা পেয়েছে। এখন পর্যন্ত দশ লাখ বার ডাউনলোড করা হয়েছে। গুগলের প্লেস্টোরে অ্যাপটির রেটিং ৪.৫। সাইজ ৩.৪ মেগাবাইট।

এক নজরে অ্যাপটির ফিচারগুলো
১. এতে রয়েছে স্বাস্থ্য বিষয়ক নানা ট্রিপস।
২. জরুরী নম্বরে কল করার ব্যবস্থা রয়েছে।
৩. প্রাথমিক রোগ সনাক্তেও সাহায্য করবে এটি। রোগীকে অসুস্থতার ধরণ সর্ম্পকে প্রশ্ন করে এর উওর দেওয়ার মাধ্যমে তা সনাক্ত করা যায়।
৪. বিভিন্ন ধরনের রোগের প্রাথমিক চিকিৎসা সর্ম্পকে বিস্তারিত ছবিসহ  বর্ণনা দেওয়া আছে।

firstaid_techshohor

৫. অ্যাপটিতে রয়েছে বিভিন্ন ওষুধের নাম।
৬. বিভিন্ন রোগের কারণ সর্ম্পকে তুলে ধরা হয়েছে এবং প্রতিকারগুলো সুন্দরভাবে তুলে ধরা হয়েছে।

এখান থেকে অ্যাপটি বিনামূল্যে ডাউনলোড করে ব্যবহার করা যাবে।


স্বাস্থ্য সেবায় প্রযুক্তির ব্যবহার বহুল প্রচলিত। ইদানিং স্মার্টফোনের মাধ্যমেও মিলছে স্বাস্থ্যের বিভিন্ন সেবা। নতুন নতুন ডিভাইস ও অ্যাপ ভূমিকা রাখছে এ ক্ষেত্রে। তেমনি একটি ডিভাইস ও অ্যাপ হলো এলাইভইসিজি।

স্মার্টফোনে এটি ব্যবহার করা হলে এখন আর রোগীকে রিপোর্ট দেখানোর জন্য চিকিৎসকের চেম্বারে শশরীরে যেতে হবে না। স্মার্টফোনটিই এখন হৃদকম্পন পরিমাপ করে তা স্বয়ংক্রিয়ভাবে পাঠিয়ে দিবে চিকিৎসকের কাছে।

alivecor

প্রযুক্তিবিদ ও চিকিৎসকরা এ প্রযুক্তিকে স্বাস্থ্য সেবায় যুগান্তকারী পদক্ষেপ হিসাবে দেখছেন। হাতে পরিধানযোগ্য এ ডিভাইসের মাধ্যমে স্মার্টফোনে থাকা এলাইভইসিজি নামের অ্যাপটি প্রতিনিয়ত হৃদকম্পন রেকর্ড করবে। http://adf.ly/eEH1d

এরপর অ্যাপটি রেকর্ড করা ডাটাবেস থেকে তথ্য বিশ্লেষণ করে কোনো সমস্যা থাকলে স্বয়ংক্রিয়ভাবে ই-মেইলের মাধ্যমে তা চিকিৎসকের কাছে পাঠিয়ে দেবে। ফলে চিকিৎসক রেকর্ড দেখে চিকিৎসার নির্দেশনা দিতে পারবেন।

এর ফলে রোগীকে কষ্ট করে হাসপাতালে চিকিৎসকের চেম্বারে যেতে হবে না। ঘরে বসেই চিকিৎসা সেবা পাওয়া যাবে। রোগী ও চিকিৎসক উভয়ের সময় সাশ্রয় হবে।

৫৭  বছর বয়সী উত্তর ক্যারোলিনার বাসিন্দা ই বি ফক্স গত বছরের অক্টোবর থেকে ডিভাইসটি ব্যবহার করছেন। তিনি জানান, এখন তাকে কষ্ট করে চিকিৎসকের কাছে যেতে হয় না। একটি ই-মেইলের মাধ্যমেই চিকিৎসার দিক নির্দেশনা পাচ্ছেন তিনি।

স্মার্টফোনের মাধ্যমে স্বাস্থ্যসেবা খাতেও নতুন দিগন্ত উন্মোচিত হয়েছে নতুন এ প্রযুক্তির মাধ্যমে।


আজকাল কম্পিউটার মানেই LCD বা LED মনিটর। বিশাল দেহ বিশিষ্ট CRT মনিটর কেউ কিনে না বললেই চলে। তো আপনি যে LCD মনিটর কিনছেন তা কি ঠিক আছে? ডেড পিক্সেল আছে কিনা নিশ্চিত হচ্ছেন কি করে?

বা কারও কাছ থেকে পুরাতন LCD মনিটর কিনার সময় মনিটর ঠিক আছে কিনা তা চেক করাটাই বুদ্ধিমানের কাজ হবে। কিভাবে চেক করবেন? সেটা জানানোর জন্যই আমার এই পোস্ট।

IsMyLcdOK নামের অসাধারণ সফটওয়্যারের মাধ্যমে খুব সহজেই চেক করে নিতে পারবেন আপনার মনিটর ঠিক আছে কিনা। ছোট এই ফ্রি সফটওয়্যারের মাধ্যমে চেক করতে পারবেন ডেড পিক্সেল,স্টাক পিক্সেল বা ক্ষতিগ্রস্ত পিক্সেল আছে কিনা।

কেমন হতে পারে ডেড পিক্সেল?

যেভাবে চেক করবেন:

প্রথমে সফটওয়্যার রান করুন। নিচের মতো দেখতে পাবেন।

তারপর সিরিয়ালে 1,2,3 চেপে White test, Black test, Red test ইত্যাদি পরীক্ষা করতে পারবেন। যদি চান অটোমেটিক সব টেস্ট হোক তাহলে F5 চেপে ENTER চাপুন। তাহলে একে একে সব টেস্ট দেখতে পারবেন।

ডেড পিক্সেল না থাকলেতো ভালই।

এই সফটওয়্যার শুধু চেক করবে কিন্তু ঠিক করতে পারবে না। এখন কথা হলো ডেড পিক্সেল ঠিক করার উপায় কি? হ্যাঁ উপায় আছে। তবে সেটা নিয়ে না হয় অন্য আরেক দিন বলবো।
ডাউনলোডঃ

IsMyLcdOK 1.31 (32 বিট)

IsMyLcdOK 1.31 (64 বিট)

সাইজ মাত্র ৯ কেবি। ইন্সটলের কোন প্রয়োজন নেই।

আশা করি আপনাদের কাজে লেগেছে।
ধন্যবাদ সবাইকে।


চোখের সমস্যার অনেক কারণের মধ্যে অন্যতম একটি প্রধান কারণ হলো কম্পিউটারের মনিটর। মনিটর থেকে ক্ষতি কারক গামা রশ্মি বের হয় যা কিনা চোখের জন্য ক্ষতিকারক। এছাড়াও মনিটরের স্ক্রিন দিনের বেলা যতটুকু উজ্জ্বল থাকে ঠিক ততোটুকু রাতের বেলাও থাকে অথচ রাতে ঐ আলো চোখে লাগে। আর এত সব ভেজাল থেকে মুক্তি দিবে F.lux নামের একটি ছোট সফটওয়্যার। এর সাইজ মাত্র 546KB।

এই সফটওয়্যারের সব চেয়ে মজার বিষয় হলো, মনিটরের স্ক্রিনের আলো অটোমেটিক পরিবর্তন হবে। যা কিনা ২৪ ঘণ্টা সময় অনুযায়ী পরিবর্তন হবে। অর্থাৎ দিনের বেলা কম্পিউটারের স্ক্রিন থাকবে বেশি উজ্জ্বল আবার রাতের বেলা মনিটরের আলো থাকবে আপনার চোখের জন্য মানানসই। আর এসব পরিবর্তনের জন্য আপনাকে কিছুই করতে হবে না। এটা নিজে নিজেই সময় অনুযায়ী পরিবর্তন হবে।
ডাউনলোড লিঙ্ক:

F.lux        /    http://adf.ly/8xTCT       এই ওয়েবসাইটে প্রবেশ করেন    [  প্রবেশ করার পর স্কিপ এড” এ ক্লিক করেন ]

সম্পূর্ণ ফ্রী সফটওয়্যার।
আশা করি সবার ভাল লাগবে।

ধন্যবাদ সবাইকে।

[ ভাল লাগলে পোস্ট এ  অবশ্যই Comment  অথবা Like দিবেন  , লাইক দিলে আমাদের কোনো লাভ অথবা আমরা কোনো টাকা পয়সা পাই না, কিন্তু উৎসাহ পাই, তাই অবশ্যই লাইক দিবেন । ]


Mozilla firefox এ যেভাবে dislike button যোগ করবেন…
Mozilla firefox এ dislike button যোগ করতে একটি add-on ইন্সটল করতে হবে।
add-on পেতে নিচের লিংক এ যান

dislike button add-on for Mozilla firefox   টি ইন্সটল করার পরে ব্রাউজার রিস্টার্ট করুন। এর পর আপনি Facebook এ log in করলে like button এর পাশে dislike button দেখতে পাবেন।
আরও জানতে নিচের লিংক এ ক্লিক করুন


1. মোবাইল সফ্টওয়্যার এর মাধ্যমেঃ SSC ও দাখিল পরীক্ষার রেজাল্ট ছোট্র একটি সফ্টওয়্যার এর মাধ্যমে সহজেই জানতে পারবেন। ডাউনলোড করে রোল নাম্বার দিন আর বোর্ড সিলেক্ট করুন তাহলে রেজাল্ট পেয়ে যাবেন। সফ্টওয়্যারটি ডাউনলোড করুন এই লিংক গুলো থেকে- …*টাইপ> http://bit.ly/J7c3Td । *টাচ> http://bit.ly/INOG3w
2. ওয়েবসাইট এর মাধ্যমেঃ www.educationboardresults.gov.bd
www.educationboardresults.gov.bd
www.dhakaeducationboard.gov.bd →এ লিংকে গিয়ে ও রেজাল্ট দেখতে পারবেন। আজ সারাদিন এই সার্ভার এর উপর বিরাট ধকল যাবে তাই মোবাইল দিয়ে এই লিংক-এ গিয়ে রেজাল্ট দেখার আশা ছেড়ে দিন। তবে যারা UC ব্রাউজার ব্যবহার করেন তারা বারবার লিংকটিতে গিয়ে * বাটন প্রেস করে পেজ রিলোড করতে থাকুন আশা করি যেকোনো একসময় রেজাল্ট পেয়ে যাবেন।
3. SMS এর মাধ্যমেঃ Message অপশনে এ গিয়ে সাধারন বোর্ডের জন্য SSC ও মাদ্রাসা বোর্ডের জন্য Dakhil লিখে একটি Space দিয়ে বোর্ডের নামের প্রথম তিন অক্ষর লিখুন এবং আরেকটি Space দিয়ে রোল নাম্বার এবং আরেকটি Space দিয়ে যে বছরের পরীক্ষার্থী তার সন টাইপ করুন এবং 16222 নাম্বারে SMS করুন→ উদাহরন-SSC Dha 123456 2012 Send to 16222।

সকল পরিক্ষার্থীদের জন্য  TECHSPACEBD  এর পক্ষ থেকে শুভ কামনা রইল। বিঃ দ্রঃ অনেক শিক্ষার্থী ভাইয়ের এ তথ্যগুলো অজানা থাকতে পারে তাদের জন্য এই পোস্টটি শেয়ার করুন। …সংগৃহীত
ভাল লাগলে আমাদের TECHSPACEBD  পেজটা একটু ঢু মেরে লাইক দিয়ে যান। আসা করি আপনাদের কাজে লাগবে।


আমাদের অনেকেই এখন ল্যাপটপ ব্যবহার করে অভ্যস্থ। যারা ঘরে বাইরে কাজ করেন, তাদের জন্য ল্যাপটপের বিকল্প নেই। ল্যাপটপের ব্যাটারি ঠিক রাখাটা জরুরি। বিশেষ করে বাংলাদেশে যেহারে লোডশেডিং বাড়ছে, ব্যাটারির চার্জ চলে গেলো নাকি এই ভয়ে থাকা লাগেই।

কোথাও গুরুত্বপূর্ণ মেইল করছেন বা প্রেসেন্টেশন করছেন আর ঠাস করে চার্জ শেষ – এমন হলে তো বিপদ।
কাজেই কিছু সফটওয়্যার আছে যার কাজ হলো আপনার ল্যাপটপের ব্যাটারিবাবার অবস্থা কেমন, চার্জ কদ্দুর আছে, কতখানি চার্জ রাখতে পারার কথা আর কতখানি এখন রাখতে পারে, কি করলে ব্যাটারি খরচ কম হবে তা বলে দিতে পারে।
এমনই একটা সফটওয়্যার হলো  BatteryCare হাতে গোনা কয়েকটা মাত্র সফটওয়্যার আমাকে প্রথম দেখাতে মুগ্ধ করে ফেলেছে, যার একটা হলো এটা। Windows এর এই ফ্রি সফটওয়্যারটির সাইজ মাত্র ১.১ মেগাবাইট।
ইন্সটল করে চালু করা মাত্র এটা আপনার System Tray তে যায়গা করে নিবে। এর সুবিধাগুলোর দিকে একটু চোখ বুলিয়ে নেয়া যাক-

১) কারেন্ট চলে গেলে নিজে থেকে power management plan চালু করবে যেন ব্যাটারির চার্জ বেশি সময় থাকে
২) কারেন্ট চলে এলে নিজে থেকে আবার অন্য plan এ চলে যাবে যেন performance পুরোটাই দিতে পারে।
৩) আপনাকে নোটিশ দিতে পারবে কম চার্জ  হলে
৪) খুটিনাটি তথ্য দেখানো, যেমন-

  •  ব্যাটারির মডেল
  • ব্যাটারির ধারণ ক্ষমতা কি পরিমাণ থাকার কথা এবং বর্তমানে কি অবস্থা
  • discharge এর ব্যাপারে তথ্য
  •  কিভাবে ব্যাটারির স্বাস্থ্য ঠিক রাখা যায় তার ব্যাপারে বিশদ আলোচনার লিংক
৫) কারেন্ট চলে গেলে কিছু Windows Service পিছনে বসে আকাজ করে আর ব্যাটারি খায়। সেগুলা অফ করে দেয়া সহ আরো অনেক কিছু!

এর মাঝে প্রথম দুইটা আমার সবচাইতে বেশি পছন্দের। আগে অনেকসময় কারেন্ট চলে গেলে টের পেতাম না, power management plan ও পাল্টানো হতো না যে ব্যাটারি বাঁচাবো। এটা ব্যবহার করে এখন কারেন্ট চলে যাক আর থাকুক, ব্যাটারি নিয়ে চিন্তা করা লাগে না। ওটা BatteryCare ই করবে 🙂

ডাউনলোড লিংক

http://adf.ly/7ZCzv   এই ওয়েবসাইটে প্রবেশ করেন    [  প্রবেশ করার পর স্কিপ এড” এ ক্লিক করেন ]


হিডেন ভিডিও রেকর্ডার nokia symbian v3 ও v5 সেট এর একটি চমৎকার এপ্লিকেশন…… এর মাধ্যমে আপনি যে কারো video রেকর্ড করতে পারবেন তার অজান্তে…। আপনার ফোন হাতে নিয়েও কেও বুজতে পারবেনা যে ভিডিও রেকর্ড হচ্ছে…। এটি ফোন এর task bar এ হিডেন অবস্থায় থাকবে…… আসুন কথা না বাড়িয়ে শুরু করি…।প্রথমে আপনি  http://adf.ly/7HUQYএই ওয়েবসাইটে প্রবেশ করেন    [ ক্লিক করার পর স্কিপ এড” এ ক্লিক করেন ] তার পর Downlod করেন   ।
extract করুন……। এবার আপনার ফোন এ install করুন……। এরপর এপ্লিকেশনটি open করুন…। তারপর option->setting……. এই জায়গাটা সবচেয় গুরুত্বপূর্ণ …।। আপনার ফোনের মডেল অনুযায়ী video size ঠিক করুন……। আমার nokia 3250′র জন্য ৩২০*২৪০ ভিডিও সাইজ সাপোর্ট করে…।। drive এ গিয়ে আপনার memory card এর ড্রাইভ select করে দেন…।। এরপর আবার option এ যান…। তারপর start camera তে click করে camera চালু করুন…। তারপর record—> hide ব্যাস আপনার কাজ শেষ…… আপনি এমনকি এপ্লিকেশনটি চালু করে ফোন key lock  করে দিতে পারবেন…।। camera চলতে থাকবে…।। দেইখেন কেও আবার খারাপ কোন কাজ এ use কইরেন না……।

 [ ভাল লাগলে পোস্ট এ  অবশ্যই লাইক দিবেন , লাইক দিলে আমাদের কোনো লাভ অথবা আমরা কোনো টাকা পয়সা পাই না, কিন্তু উৎসাহ পাই, তাই অবশ্যই লাইক দিবেন । ]


আজ আপনাদের সাথে গরম একটা জিনিস শেয়ার করব। এটার মাধ্যমে আপনি আপনার ভিক্টিমের কম্পিউটার থেকে সব ধরনের পাসওয়ার্ড হ্যাক করতে পারবেন।

১/নিচের লিংক থেকে সফটওয়্যারটি ডাউনলোড করুন।
ডাউনলোড লিংকঃ (৩২০ KB  মাত্র )

প্রথমে আপনি  http://adf.ly/77DPU এই ওয়েবসাইটে প্রবেশ করেন    [ ক্লিক করার পর স্কিপ এড” এ ক্লিক করেন ] তার পর Downlod করেন   ।

২/এবার এক্সট্রাক্ট করুন।

৩/এবার আপনি ৩ টি ফাইল পাবেন –mypass এ ক্লিক করলে আপনার পিসির (আপনার ভিক্টিমের) সকল পাসওয়ার্ড ও যাবতীয় তথ্য দেখাবে।

webpassview এ ক্লিক করলে আপনার ব্রাউজারে (আপনার ভিক্টিমের) সেভ  করা সকল পাসওয়ার্ড দেখাবে।

বিঃদ্রঃ দয়া করে ডাউনলোডের সময় আপনার এন্টি ভাইরাসটি বন্ধ করে নিন ।অনেক সময় এন্টি ভাইরাস এসব সফটওয়্যারকে ভাইরাস হিসেবে ডিটেক্ট করে।

 [ ভাল লাগলে পোস্ট এ  অবশ্যই লাইক দিবেন , লাইক দিলে আমাদের কোনো লাভ অথবা আমরা কোনো টাকা পয়সা পাই না, কিন্তু উৎসাহ পাই, তাই অবশ্যই লাইক দিবেন । ]


কিছু কিছু সময় আপনার executable(.exe)  ফাইলের ICON পরিবর্তন করার দরকার হয়। এই জন্যই আমার এই টিউনটি। আমি আজ আপনাদের দেখাব কিভাবে executable(.exe)  ফাইলের আকন পারমানেন্টলি চেঞ্জ করতে হয়। স্টেপ-বাই-স্টেপ নিচে বর্ণনা করলাম। আশাকরি আপনাদের ভালো লাগবে।

1.  সবচেয়ে প্রথমে আপনি  এই   http://adf.ly/6leEK   [ ক্লিক করার পর স্কিপ এড” এ ক্লিক করেন ] ওয়েবসাইটে প্রবেশ করে Icon Changer এর trial version ডাউনলোড করুন এবং আপনার অপারেটিং সিসটেমে ইনস্টল করুন।

2. যেই exe file এর ICON  চেঞ্জ করতে চান সেটার উপর Right-click করুন।

3. এখন আপনি Change Icon… নামে একটা অপশন দেখতে পাবেন। এটাতে ক্লিক করুন।

4. এখন আপনার Icon Changer program টি ওপেন হবে

5. Icon changer আপনার সিসটেমের সকলা ICONS  সার্চ করবে এবং এটা থেকে আপনি পছন্দের আইকন সিলেক্ট করুন।

6. এখন ICON পছন্দ করে  SET অপশনে ক্লিক করুন।

7. এখন একটা পপআপ উইন্ডো দুইটা অপশন জিজ্ঞাসা করবে।

* Change embeded icon.
* Adjust Windows to display custom icon.

এখান থেকে Change embeded icon সিলেক্ট করুন।

8. আপনার আইকন চেঞ্জের কাজ শেষ এবার আমাকে কমেন্ট করুন।


আপনার কম্পিউটারের ফাইল যদি আপনার কথা না শোনে, তাহলে তাকে মেরে ফেলার অধিকার নিশ্চয়ই আছে আপনার! হ্যাঁ, কোনো ফাইল যদি এমনভাবে জায়গা দখল করে বসে যে তাকে আপনি সরাতেই পারছেন না আপনার কম্পিউটার থেকে, তাহলে একমাত্র উপায় তাকে মেরে ফেলা।

FileAssassin (বাংলায় ফাইল হত্যাকারী) নামের ছোট্ট এই সফটওয়্যারটি আপনার হয়ে কাজটি করে দিতে প্রস্তুত। আসুন জেনে নিই কীভাবে আপনি এই সফটওয়্যারটি ব্যবহার করে ফাইল ডিলিট করবেন।
FileAssassin

প্রথমেইএড্রেসে  এ প্রবেশ   http://adf.ly/6cffu   [ ক্লিক করার পর স্কিপ এড” এ ক্লিক করেন ]  করে ২০০ কিলোবাইটেরও কম আকারের ইন্সটলারটি ডাউনলোড করে নিন। তারপর ইন্সটল করে প্রোগ্রামটি চালু করুন। এবারে নিচের মতো একটি উইন্ডো দেখতে পাবেন।

fileAssasin

এই উইন্ডোর টেক্সট বক্সে আপনাকে যে ফাইল বা ফোল্ডারটি ডিলিট করতে চান, তার অবস্থান বলে দিতে হবে। আপনি ফাইলটি ড্র্যাগ অ্যান্ড ড্রপ পদ্ধতিতে এ কাজটি করতে পারেন, অথবা “…” বাটনে কিক করে ব্রাউজ করার মাধ্যমে ফাইল অবস্থান জানিয়ে দিতে পারেন।

কাঙ্ক্ষিত ফাইল বা ফোল্ডারের অবস্থান জানিয়ে দেয়ার পর নিচে কয়েকটি অপশন পাবেন। এখান থেকে প্রথম রেডিও বাটনটিতে কিক করুন। আপনি যদি শুধু ফাইলটির প্রক্রিয়া বন্ধ করতে চান, অর্থাৎ মুছে ফেলতে না চান, তাহলে Delete this File চেকবক্স থেকে টিকচিহ্নটি উঠিয়ে দিন। অন্যথায় এই চেকবক্সটিতেও টিক দিয়ে ‘Execute’ বাটনে কিক করুন।

FileAssassin এবার আপনার ফাইল মূলোৎপাটন করবে। উল্লেখ্য, আপনার ফাইল যদি লক করাও থাকে, ফাইলঅ্যাসাসিনের জন্য তা ডিলিট করা মোটেও কষ্টকর হবে না। বরং, যে কোনো প্রকারের ফাইল মুছে ফেলার জন্য আমার দেখা শ্রেষ্ঠ সফটওয়্যার হচ্ছে FileAssassin


আজ আমি আপনাদের সাথে একটি মজার সফটওয়্যারর শেয়ার করব।

এখন আপনি আপনার কীবোর্ড কে চাইলে কথা বলাতে পারেন!!

আজকে আমি আপনাদের এমন একটি সফটওয়্যার এর কথা বলবো যেটির সাহায্যে আপনি কিবোর্ড এ যেকোনো অক্ষর চাপলেই তা পরে শোনাবে।

এজন্য আপনার লাগবে

Talking key সফটওয়্যারটি।

সফটওয়্যার টি ডাউনলোড করুন ও একটু ফান করুন!!

Download Link:     http://adf.ly/6NaAQ         [ ক্লিক করার পর স্কিপ এড” এ ক্লিক করেন ] 

সবাইকে ধন্যবাদ।

ফেসবুকে আমি

 [ ভাল লাগলে পোস্ট এ  অবশ্যই লাইক দিবেন , লাইক দিলে আমাদের কোনো লাভ অথবা আমরা কোনো টাকা পয়সা পাই না, কিন্তু উৎসাহ পাই, তাই অবশ্যই লাইক দিবেন । ]